দুর্গাপুর

দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালে দুর্গাপুর পূর্বের বিধায়ক প্রদীপ মজুমদার ১০০ টি মৃতদেহ বহন করে নিয়ে যাওয়ার কিট দিলেন :

সংবাদ ভাস্কর নিউজ : বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে সারাদেশ এমনকি রাজ্যবাসী একপ্রকার আতঙ্কের মধ্যে দিন কাটাচ্ছে। তার মূল কারণ হলো সম্প্রতি করোনা সংক্রমণে যেভাবে মানুষ ব্যতিব্যস্ত একইসাথে সংক্রমিত হচ্ছে, এই বিষয়টিতে যথেষ্টই ভয় ভীতির সঞ্চার মানুষের মধ্যে সৃষ্টি হয়েছে। দিনের-পর-দিন করোনা সংক্রমণে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে সংক্রমিত এর সংখ্যা। এমনকি এই করোনা সংক্রমণে সংক্রমিত হয়ে মৃতের সংখ্যাও যেন প্রত্যেকদিন একইভাবে বৃদ্ধি পেয়ে চলেছে। কোনমতেই যেন এই সংক্রমণে লাগাম টানা সম্ভব হচ্ছে না সরকারের পক্ষে।

ইতিমধ্যেই কেন্দ্র ও রাজ্য সরকার উভয়ই এই করোনা সংক্রমণকে প্রতিহত করার জন্য একাধিক বিধি নিষেধ জারি করেছে। দেশের বিভিন্ন রাজ্যে ইতিমধ্যেই চলছে লকডাউন পরিস্থিতি । এ রাজ্যে সম্প্রতি আংশিক লকডাউন এর সাথে একাধিক করোনা বিধি – নিষেধ জারিও করা হয়েছে। কিন্তু এই করোনা সংক্রমণকে কোনভাবেই যেন প্রতিহত করা সম্ভব হয়ে উঠছেনা সরকারের পক্ষে। একইসাথে বৃদ্ধি পাচ্ছে মৃতের পরিসংখ্যানটা ক্রমশ দিনের পর দিন রাজ্য জুড়ে । বৃহস্পতিবার দুর্গাপুর পূর্বের তৃণমূল কংগ্রেসের বিধায়ক প্রদীপ মজুমদার দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালে ১০০ টি মৃতদেহ বহন করে নিয়ে যাওয়ার জন্য কিট দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালের সুপার কে প্রদান করেছেন। বর্তমান পরিস্থিতিতে যেভাবে এই করোনা সংক্রমণে মৃতের সংখ্যাটা বেড়ে চলেছে সে ক্ষেত্রে মৃতদেহ বহন করে নিয়ে যাওয়ার জন্য বিভিন্ন সময়ে এই কিট এর অভাবে নানাবিধ অসুবিধার সম্মুখীন হতে হচ্ছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে। তাই দুর্গাপুর পূর্বের বিধায়ক এর এই সহযোগিতা যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ এই কঠিন সময়ে সেই বিষয়ে কোনো সন্দেহ নেই। এদিন এই মৃতদেহ বহন করার কিট প্রদান করার সময় উপস্থিত ছিলেন দুর্গাপুর পূর্বের বিধায়ক প্রদীপ মজুমদার, দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালের সুপার, দুর্গাপুর ২৫ নম্বর ওয়ার্ডের পৌরপিতা দীপঙ্কর লাহা, ২৩ নম্বর ওয়ার্ডের পৌরপিতা দেবব্রত চাই। এদিন এই মৃতদেহ বহন করার কিট পেয়ে দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতাল সুপার বলেছেন, মৃতদেহ বহন করে নিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে এগুলি অনেকটাই সুবিধা প্রদান করবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button