কলকাতাসাধারণ খবর

বাড়ি নিয়ে বিবাদের জেরে কাঁচি দিয়ে ভাড়াটেকে কুপিয়ে মারলো বাড়িওয়ালা –

সংবাদ ভাস্কর নিউজ ডেস্ক : বাড়ি নিয়ে দীর্ঘদিনের বচসার জেরে খুন হতে হলো এক ভাড়াটেকে । ঘটনাটি ঘটেছে গত শনিবার ট্যাংরা এলাকার দেবেন্দ্রচন্দ্র দে রোডে । মৃত ভাড়াটের নাম মনোজ রাম ।

মৃতের মা জানিয়েছেন , ওই বাড়িওয়ালার আন্ডারে মোট ৯-১০ টি ভাড়াটে রয়েছে । দীর্ঘদিন ধরে বাড়ির মালিক অশোক ও তার স্ত্রী বেদানিয়া দাসের ভাড়াটেদের বিবাদ চলছে । বাড়িটিকে প্রোমোটিংয়ে দেওয়ার জন্য ভাড়াটেদের উঠে যাওয়ার জন্য চাপ দিচ্ছিল । কিন্তু ভাড়াটেরা বেঁকে বসায় অন্য রাস্তা নেয় বাড়িওয়ালা । ভাড়া বাড়ানো বা কখনো প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি পর্যন্ত দিচ্ছিল ।

এক স্থানীয়র কথায় , শনিবার সকালে এক ভাড়াটের সঙ্গে তুমুল ঝগড়া বাধে অশোকের স্ত্রী বেদানিয়ার । এক ভাড়াটে মহিলাকে বেধড়ক মারধর করেন অশোকের স্ত্রী তার বাড়ির লোকদের ডেকে । পুলিশের মধ্যস্থতায় তখনকার মতো ঝামেলা মিটে গেলো ফের রাতে অশোক ওই বাড়িওয়ালার সঙ্গে ঝামেলা শুরু করে । সেখানে উপস্থিত ছিল তার , স্ত্রী , মেয়ে , ভাইপো ও ছেলেরা ।

সূত্রের খবর , বাড়িওয়ালা অশোক ওই ভাড়াটের মাথায় একটা ইট দিয়ে আঘাত করে । সেই সময় কাছ থেকে ফিরছিলেন আরেক ভাড়াটে মনোজ রাম । বাড়িওয়ালার হাতে আরেক ভাড়াটে প্রতিবেশীকে নিগৃহীত হতে দেখে তিনি বাঁচাতে ছুটে আসেন ওই ভাড়াটেকে । এর পরে তাঁর উপর চড়াও হয় বাড়িওয়ালা । তাকে হকি স্টিক দিয়ে মারলে সে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে । মনোজের স্ত্রীর অভিযোগ , অশোকের মেয়ে বেবি ঘর থেকে একটা কাঁচি এনে দাদা অনিল দাস কে দিলে , অনিল কাঁচিটি সোজা মনোজের বুকের বাঁ দিকে ঢুকিয়ে দেয় । এরপর অশোকের ভাইপো রবি দাস ওই কাঁচি নিয়ে মনোজের পেটে কোপ মারে বেশ কয়েকবার । এরপর তাকে বাঁচাতে এসে স্থানীয় বাসিন্দা গৌতম দাসও আহত হয় । গৌতমের হত কাঁচি দিয়ে চিরে দেওয়া হয় ।

আহত দুজনকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে ডাক্তাররা পরীক্ষা করে সেখানে মনোজ রামকে মৃত বলে ঘোষণা করে । এরপর মনোজের স্ত্রী রেখা রাম অশোক ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করে । যার পরিপ্রেক্ষিতে পুলিশ খুন ও খুনের চেষ্টার মামলা রুজু করে অশোক ও তার পরিবারের মোট সাতজনকে গ্রেপ্তার করে ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button