দেশের খবরশিরোনাম এই মুহূর্তে

লোকাল ট্রেনে সিসি ক্যামেরা, মহিলাদের নিরাপত্তায় অত্যাধুনিক ব্যবস্থা রেল কর্তৃপক্ষের –

সংবাদ ভাস্কর নিউজ ডেস্ক : ১৯শে সেপ্টেম্বর, ইন্দ্রাণী সেনগুপ্ত , কলকাতা : লকডাউনের প্রভাবে আমূল পরিবর্তন হতে চলেছে লোকাল ট্রেনের আভ্যন্তরীন কাঠামো।‌ ইতিমধ্যেই একেবারে বদলে গিয়েছে কলকাতার ব্যাস্ততম রেল স্টেশন শিয়ালদহের চিত্রপট। যাত্রী স্বার্থে হাওড়া ও শিয়ালদহ বিভাগের লোকাল ট্রেনগুলিতে বসছে সিসিটিভি ক্যামেরা৷ একই সঙ্গে রাতের মতো দিনেও লোকাল ট্রেনের কামরায় নিরাপত্তারক্ষী মোতায়েন করার পরিকল্পনাও রয়েছে রেল কর্তৃপক্ষ এর। সম্পূর্ণ ফাইভ স্টার কায়দায় অত্যাধুনিক ব্যবস্থায় প্রস্তুত ৩৩টি স্টেশন প্লাটফর্ম চত্বর। তারই পাশাপাশি এবারে লোকাল ট্রেনেও চালু হতে চলেছে সিসি ক্যামেরার ব্যবহার। বিশেষত মহিলা যাত্রীদের নিরাপত্তার খাতিরেই এবারে মহিলা কামরায় বসানো হচ্ছে সিসি ক্যামেরা।


যাত্রীদের স্বাচ্ছন্দ্যের কথা মাথায় রেখেই তৈরি হচ্ছে আধুনিক রেক। রেল সুত্রের খবর, এগুলি প্রস্তুত করা হচ্ছে আইসিএফ কোচ ফ্যাক্টরিতে। কেমন হবে এই রেকগুলি?‌ বর্তমানে করোনা আবহে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখাটা বিশেষ প্রয়োজন বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য দপ্তর। কিন্তু লোকাল ট্রেনে সোশ্যাল ডিস্টেন্স মেইনটেইন এর কথা, এ ভাবাই যায় না! আর তাই এই নতুন ধাঁচে অত্যাধুনিক পদ্ধতিতে আসছে লোকাল ট্রেন। বাস্তবিক, এই ট্রেনের কামরাগুলির ভেতরে সামাজিক দুরত্বের জন্য যথেষ্ট জায়গা থাকবে বলে জানা গিয়েছে। মুখোমুখি সিটের দূরত্বটাও বেশি থাকবে। এমন ভাবে এই রেকগুলি তৈরি করা হয়েছে যাতে ঝাঁকুনি হলে একজন অন্য জনের ঘাড়ে গিয়ে না পড়ে। বাইরে থেকে কামরা গুলোতে যাতে বেশি পরিমাণ হাওয়া বাতাস ঢোকে তার জন্যও কামরায় থাকছে ফোর্স ভেন্টিলেশন সিস্টেম। মাথার ওপরে থাকবে এয়ারডাকও। পাশাপাশি ট্রেনে অপরাধ মূলক ক্রিয়াকলাপ রুখতে এবং মহিলাদের সুরক্ষার কথা মাথায় রেখে এই নতুন রেকের মহিলা কামরায় থাকছে সিসি ক্যামেরার ব্যবস্থা। কিন্তু এই ক্যামেরা থাকবে সাধারণ মানুষ ও অপরাধীদের চক্ষুর অগোচরে। শুধুমাত্র কোনও বিশেষ প্রয়োজনে রেল কর্তৃপক্ষই তা ব্যবহার করতে পারবে। আর এই ক্যামেরায় পাওয়া যাবে রেকর্ড করা ফুটেজও। এতে ট্রেনের ভেতর অপরাধমূলক ঘটনার প্রবণতা কমবে বলেই আশা করছেন রেল কর্তৃপক্ষ। ইতিমধ্যেই বেশ কয়েকটা থ্রি ফেজের অত্যাধুনিক রেক শিয়ালদহ স্টেশনে পৌঁছে গেছে। এখন এটাই দেখার বিষয়, রেল কর্তৃপক্ষ এর এই অভিনব প্রয়াস অপরাধ দমনে এবং সোশ্যাল ডিস্টেন্স মেইনটেইনে কতটা সাফল্য এনে দিতে পারে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button