মদের আবদারে উঠে গেল জরুরী পরিষেবা

কলকাতা

সংবাদ ভাস্কর নিউজ ডেস্কঃ

-Advertisement-

লকডাউন পরিস্থিতির একেবারে শুরুতে কোলকাতা ও হাওড়ার কিছু সহৃদয় মানুষ একসাথে হয়ে একটি জরুরী পরিষেবা নম্বর চালু করেছিল যার মাধ্যমে তাঁরা শহরের বয়স্ক নাগরিকদের প্রয়োজনে ওষুধ বা অন্য দরকারি সামগ্রী সাধ্যমতো পৌঁছে দেবে তাঁদের ঘরে। সোশ্যাল নেটওয়ার্কগুলিতে তাঁরা স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে এই নম্বর দিয়ে যোগাযোগ করতে বলে এবং অভূতপূর্ব সাড়া মেলে এই উদ্যোগের। প্রশাসনের সহায়তায় তাঁরা গত দু’সপ্তাহে কয়েকশো মানুষকে বাড়ি গিয়ে সাহায্যও করেছেন, থ্যালাসেমিয়ায় আক্রান্তের জন্য রক্ত দিয়েছেন, এইডস আক্রান্ত শিশুদের হোমে দুধ পৌঁছেছেন, বাজারও করে দিয়েছেন বয়স্কদের।

কিন্তু কিছু অসাধু ও অমানবিক নাগরিকের উৎপীড়নে অতিষ্ট হয়ে অবশেষে তাঁরা বন্ধ করতে বাধ্য হল এই প্রচেষ্টা। এর মুল কারন হল দিনরাত ওই পরিষেবার নম্বরটিতে ফোন করে কিছু মানুষ অনবরত বাড়ীতে মদ পাঠানোর জন্য জোরাজুরি করতে থাকে। ওই পরিষেবাদানকারী এক সদস্যের কথায় দিনে প্রায় ৩ হাজার মদের আবদারের ফোন আসছিল। সকাল ৮ টায় অব্দি এই ধরনের ফোন আসতে শুরু করে। সদস্যরা আরও বলেন,” আমরা কঠিন পরিস্থিতিতে মানুষের পাশে থাকতে চেয়েছিলাম। কিন্তু যা হল, তাতে আমাদের সম্মান যেমন নষ্ট হল, তেমনই প্রবীণ মানুষরা পরিষেবা থেকেও বঞ্চিত হলেন। এরপর তো কেউ ভালো কাজ করতে আর এগিয়ে আসবে না।”

-Advertisement-

যাদের জন্য কিছু সত্যিকারের অশক্ত ও প্রবীন মানুষরা পরিষেবা পাওয়া থেকে বঞ্চিত রইলেন তাদের কঠোর শাস্তির দাবী জানাচ্ছি।

-Advertisement-

Share this page:

Leave a Reply

Your email address will not be published.

-Advertisement-