দুর্গাপুর পৌরসভার নয়া পদক্ষেপ ওষুধের দোকান থেকে সর্দি ও কাশির ওষুধ কিনলেই দিতে হবে তথ্য –

পশ্চিমবঙ্গ

সংবাদ ভাস্কর নিউজ :: সুকান্ত বণিক চৌধুরী : করোনা ভাইরাস কে প্রতিহত করবার ও খুব সহজেই করোনা ভাইরাস লক্ষণীয় ব্যাক্তিদের অতি সহজে খুঁজে বার করার এক অভিনব পথ দেখালো দুর্গাপুর পুরসভা | ওষুধের দোকানে জ্বর সর্দি কাশির ওষুধ কিনতে গেলে এবার থেকে দোকানদারের কাছে ক্রেতাকে নাম ঠিকানা ও ফোন নম্বর দিতে হবে। দুর্গাপুর পুরসভার ৪৩ টি ওয়ার্ডের ওষুধের দোকান থেকে জ্বর সর্দি কাশির ওষুধ কিনতে হলে ওষুধ দোকানদারকে সংশ্লিষ্ট ক্রেতার নাম ঠিকানা ও ফোন নম্বর লিখে রাখতে হবে এবার থেকে। তাছাড়া যেসব ওষুধ ক্রেতা চিকিৎসককে দেখিয়ে জ্বর সর্দি কাশির ওষুধ কিনবেন তাঁদেরও সংশ্লিষ্ট চিকিৎসকের প্রেসক্রিপশন সঙ্গে ওষুধ দোকানদারকে রোগীর নাম ঠিকানা ও ফোন নম্বর লিখে রাখতে হবে।দুর্গাপুর পুরসভার স্বাস্থ্য দফতরের মেয়র পারিষদ রাখি তেওয়ারি ও স্বাস্থ্য দফতরের আধিকারিক ডা. দেবব্রত সাহানা সহ পুর কমিশনারের উপস্থিতিতে দুর্গাপুরের পাইকারি ও খুচরো ওষুধ ব্যবসায়ীদের সঙ্গে এক বৈঠক অনুষ্ঠিত হয় গত সোমবার , এই বৈঠকেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় এই গুরুত্বপূর্ন বিষয়টিতে | এছাড়াও দুর্গাপুর পুরসভার স্বাস্থ্য দফতর পুর এলাকার বাসিন্দাদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে জ্বর সর্দি কাশিতে আক্রান্ত ব্যক্তিদের খোঁজ খবর রাখতে বিশেষ উদ্যোগ নিচ্ছে।একই সঙ্গে মঙ্গলবার থেকে বাড়ি বাড়ি খোঁজ খবর রাখবে দুর্গাপুর পুরসভার স্বাস্থ্য কর্মীরা। পাঁচ দিন চলবে বাড়ি বাড়ি খোঁজ খবর পর্ব। জানা গেছে দুর্গাপুর পুরসভার ২৬৫ জন স্বাস্থ্য কর্মীর সঙ্গে প্রায় হাজারখানেক স্বাস্থ্য দপ্তরের ভলান্টিয়ার্স এই কাজ করবেন। এই পদক্ষেপ নেওয়াতে দুর্গাপুরের করোনা সংক্রমণ প্রায় অনেকটাই আয়ত্তের মধ্যে আসবে বলে মনে করা হচ্ছে |

-Advertisement-
Share this page:

Leave a Reply

Your email address will not be published.

-Advertisement-