-Advertisement-

BPT কোর্সের ছাত্র-ছাত্রীদের সমস্যা অবিলম্বে সুরাহা করা হোক , দাবি AIDSO মেডিকেল ইউনিটের –

পশ্চিমবঙ্গ

সংবাদ ভাস্কর নিউজ ডেস্ক : আজ AIDSO মেডিকেল ইউনিটের পক্ষ থেকে স্বাস্থ্য বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্যের কাছে একটি অনলাইন মেমোরেন্ডাম পাঠানো হয়। তাতে BPT কোর্সের ছাত্র-ছাত্রীদের সমস্যা অবিলম্বে সুরাহা করা, কোর্সের অনিশ্চয়তা ও মানসিক চাপ কাটাতে পূর্ণাঙ্গ কর্মসূচি প্রকাশের দাবি করা হয়েছে।
সেই সঙ্গে তাদের কোর্সের নির্দিষ্ট চার বছরের বাইরে যে সময়টুকু দীর্ঘায়িত হয়ে গেছে, সেই সময়ের জন্য এক পয়সাও বাড়তি ফি নেওয়া চলবে না।

-Advertisement-


ফিজিওথেরাপি ব্যাচেলার কোর্সের (BPT) প্রথম বর্ষের ছাত্রছাত্রীরা চূড়ান্ত অনিশ্চয়তায় দিন কাটাচ্ছে। তারা 2018 সালের সেপ্টেম্বর মাসে JENPAUH পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে BPT কোর্সে ভর্তি হয়েছিল।
সেই মাফিক প্রথম বর্ষের পরীক্ষা সেপ্টেম্বর 2019 শেষ হয়ে যাবার কথা। কিন্তু ইউনিভার্সিটি কর্তৃপক্ষের চূড়ান্ত গাফিলতিতে পিছিয়ে যেতে যেতে মার্চ মাসে শুরু হয়েছিল এবং টি পেপার পরীক্ষার পর করোনা অতিমারি পরিস্থিতিতে অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত হয়ে গেছে।
উদ্বিগ্ন ছাত্রছাত্রীরা তাদের পরীক্ষা, পঠনপাঠন, পরিকল্পনা সংক্রান্ত ব্যাপারে কোন প্রশ্ন করলে কর্তৃপক্ষ কোন উত্তর দিচ্ছে না। ইতিমিধ্যে কর্তৃপক্ষের উদাসীনতা তাদের জীবনের টি গুরুত্বপূর্ণ মাস নষ্ট করেছে এবং তা কত দীর্ঘ হবে তার কোন উত্তর নেই।
এই প্রসঙ্গে আর একটা কথা বলা দরকার, বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানে ছাত্রছাত্রীরা হোস্টেল পায় না, ফলে কোর্স দীর্ঘায়িত হওয়া মানেই বাড়তি খরচের বোঝা যা লকডাউন পরিস্থিতিতে তাদের পরিবারের উপরেও বিরাট অর্থনৈতিক চাপের সৃষ্টি করছে।
এমতাবস্থায় ছাত্ররা প্রচন্ড অনিশ্চয়তা, উদ্বেগ এবং মানসিক চাপের মধ্যে সময় কাটাচ্ছে কিন্তু স্বাস্থ্য বিশ্ববিদ্যালয়ের কোন হেলদোল নেই।

Share this page:

Leave a Reply

Your email address will not be published.

-Advertisement-