-Advertisement-

টিএমসির সংসদ সদস্য নুসরাত জাহান টিকটোক নিষেধাজ্ঞাকে ২০১৬’র নোটবন্দির সঙ্গে তুলনা করল –

দেশের খবর

সংবাদ ভাস্কর নিউজ ডেস্ক : লোকসভার সাংসদ নিজেই টিকটকে বেশ সক্রিয় ছিলেন যেখানে তিনি তাঁর ভক্তদের সাথে আলাপচারিতা করেছিলেন । আগেও বেশ কয়েকবার নুসরাত জাহানের বেশ কিছু টিকটোক ভিডিও সামনে এসেছিল ।

-Advertisement-


সোমবার গভীর রাতে ভারত সরকার টিকটোক, শিন, ইউসি ব্রাউজার এবং অন্যান্য 59 টি চীন অ্যাপগুলিতে নিষেধাজ্ঞা জারি করে । স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক জানিয়েছে – “কেন্দ্র এইসব অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার সম্পর্কে , তাদের কাছে অনেক অভিযোগ জমা পড়েছে” । কেন্দ্রীয় তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রক থেকে জানানো হয়েছে , ভারতীয় সাইবার সুরক্ষা ও সার্বভৌমত্ব নিশ্চিত করার লক্ষ্যে এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।
কেন্দ্রের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, এই ৫৯টি অ্যাপ দেশের সার্বভৌমত্ব, অখণ্ডতা, দেশের সুরক্ষার জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর ! সে জন্যই এই অ্যাপগুলিকে নিষিদ্ধ করা হল।
শুধু তাই নয় এই সব অ্যাপ্লিকেশনগুলি অপব্যবহার সম্পর্কিত বিভিন্ন প্রতিবেদন সহ ভারতের বাইরের লোকেশন রয়েছে এমন সার্ভারগুলিতে অননুমোদিত পদ্ধতিতে ব্যবহারকারীদের ডেটা চুরির অভিযোগ জমা পড়েছে ভারত সরকারের কাছে ।


এর মধ্যেই আবার , অভিনেত্রী এবং তৃণমূল কংগ্রেসের সংসদ সদস্য নুসরাত জাহান , যিনি নিজে টিকটকে বেশ সক্রিয় থাকতেন, নিষেধাজ্ঞায় তার অসন্তুষ্টি প্রকাশ করেন জনসম্মুক্ষে ।
নুসরাত জানান – জাতীয় স্বার্থে বা দেশের নিরাপত্তার জন্য এই ব্যান তিনি সম্পূর্ণ মেনে নিয়েছেন৷ কিন্তু সেই সঙ্গে তাঁর বক্তব্য যে, এটি শুধুমাত্র সাধারণের চোখে ধুলো দেওয়ার জন্য করা হয়েছে৷ এবং এটি হঠকারী সিদ্ধান্ত৷ কারণ তাঁর মতে এর ফলে অনেকের রুটি-রুজি বন্ধ হবে ৷
অভিনেত্রী-সাংসদ বলছেন যে দেশের নিরপত্তার স্বার্থে এবং জাতীয় সংহতির জন্য অ্যাপ ব্যান সমর্থনযোগ্য৷ তাই এই নিষিদ্ধকরণের পক্ষে নুসরত৷ কিন্তু শুধুমাত্র অ্যাপ ব্যান নয়, চিনের বিরুদ্ধে লড়তে গেলে আরও বড় পদক্ষেপ করতে হবে কেন্দ্রকে ৷
নুসরাত জাহানের এই বিবৃতি আসার পরেই নেটিজেনদের তোপের মুখে পড়লেন নুসরাত জাহান ৷
AG

-Advertisement-

সূত্র : ANI

-Advertisement-
Share this page:

Leave a Reply

Your email address will not be published.

-Advertisement-