-Advertisement-

কলকাতার নিউ আলিপুরে 10 বছরের কিশোরীর দেহ উদ্ধার , রহস্যজনক ভাবে মৃত্যু , চলছে তদন্ত –

Behala কলকাতা পশ্চিমবঙ্গ শিরোনাম এই মুহূর্তে

সংবাদ ভাস্কর নিউজ ডেস্ক : শহর জুড়ে নিউ আলিপুরের এই কিশোরীর মৃত্যুতে দানা বেঁধেছে রহস্য ।
পুলিশ সূত্রে খবর , কলকাতার নিউ আলিপুর এলাকায় নিজের বাড়িতে রহস্যজনক পরিস্থিতিতে মৃত অবস্থায় পাওয়া গেছে ১০ বছর বয়সী এক কিশোরীকে । কিশোরীর মায়ের বক্তব্য – শুক্রবার দুপুরে ওই কিশোরী বাথরুমের মেঝেতে অজ্ঞান অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায় ।
পুলিশ সূত্রে খবর : ওই কিশোরীর মা এক প্রতিবেশীর (মায়ের এক ‘বন্ধু’) সহায়তায় তাকে বিদ্যাসাগর হাসপাতালে নিয়ে যান এবং সেখানে চিকিৎসকরা ওই কিশোরীকে মৃত বলে ঘোষণা করে । মা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে জানান, বুকে ব্যথার জেরে বাড়ির বাথরুমে পড়ে গিয়ে মৃত্যু হয়েছে মেয়ের । যেহেতু হাসপাতালে নিয়ে এলে মৃত ঘোষণা করা হয়েছে তাই শনিবার ময়না তদন্ত করা হয় বালিকার দেহের ।
চিকিৎসকরা পুলিশকে জানিয়েছেন যে মেয়েটির ঘাড়ে অজস্র চিহ্ন রয়েছে কিন্তু শ্বাসরোধ হয়ে মৃত্যু হয়েছে কিনা সেইটা এখন এই মুহূর্তে বলা সম্ভব নয়, একজন পুলিশ কর্মকর্তা জানিয়েছেন
পুলিশ জানিয়েছে যে তারা কিশোরীর মৃত্যু নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে এবং কিশোরীর মৃত্যুর পেছনে কোন ফাউল প্লে আছে কিনা সেটাও তারা খতিয়ে দেখছে ।

-Advertisement-

কিন্তু শনিবার ময়নাতদন্ত করার পরেই এই ঘটনা নয়া মোড় নেয় । মায়ের দাবি, বুকে ব্যথার জেরে অসুস্থ হয়ে পড়ে সে। কিন্তু ময়নাতদন্তের প্রাথমিক রিপোর্ট বলছে –‘ইনকনক্লুসিভ রিপোর্টে’ ময়না তদন্তকারী চিকিৎসক পুলিশকে জানিয়েছেন , গলায় কালশিটে দাগ ছিল তার । শ্বাসরোধের জেরে মৃত্যু বলে সন্দেহ । এমনকী, গলায় দড়িও পাওয়া গিয়েছে । মৃত্যুর কারণ নিয়ে ধন্দ থাকায় ঘটনাস্থল পরিদর্শন করতে চেয়েছেন ময়না তদন্তকারী চিকিৎসক । বালিকাকে খুনের বিষয়টিও উড়িয়ে দিচ্ছে না তদন্তকারীরা।

এরকম সন্দেহজনক রিপোর্ট হাতে আসার পরই নিউ আলিপুর থানা ও লালবাজারের হোমিসাইড শাখা জোরকদমে তদন্তে নামে। শনিবার রাতেই ই-ব্লকের ওই বাড়িতে যায় পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদ শুরু হয় বালিকার মা ও ওই বাড়িতে যাতায়াতকারী এক যুবককে ।

-Advertisement-

পুলিশের প্রশ্ন , মেয়ের মৃত্যুর ব্যাপারে অসুস্থতার কারণ কেন দেখালেন মা? পাশাপাশি পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদে বালিকার মা দাবি করেছেন, গত কয়েকদিন ধরেই ভুতুড়ে আতঙ্ক তাড়া করে বেড়াচ্ছিল ছোট্ট মেয়েকে। বিভিন্ন অলৌকিক দৃশ্য দেখতে পাচ্ছিল বলেও জানিয়েছিল সে। কিন্তু মায়ের দাবি করা এই ভুতুড়ে কথা কতটা সত্যি তা নিয়েও প্রশ্ন তুলছে পুলিশ। তদন্তকারীদের বিভ্রান্ত করতেই কী ভুতুড়ে বিষয় সামনে আনছেন মা? তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। শুক্রবার থেকে দফায় দফায় জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে তাকে ।

-Advertisement-

ইতিমধ্যেই এই ঘটনায় অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করে তদন্ত শুরু হয়েছে। সোমবার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করতে পারেন ময়না তদন্তকারী চিকিৎসক। তারপরই তিনি কী রিপোর্ট দেন তার উপরেই নির্ভর করছে এই রহস্যমৃত্যুর ভবিষ্যত।

AG

Share this page:

Leave a Reply

Your email address will not be published.

-Advertisement-