-Advertisement-

করোনা সন্দেহে টানা ১০ ঘন্টা ঘরে আটকে এক বৃদ্ধার মৃতদেহকে ঘিরে চাঞ্চল্য দুর্গাপুরে –

দুর্গাপুর শিরোনাম এই মুহূর্তে

সংবাদ ভাস্কর নিউজ ডেস্ক : পশ্চিম বর্ধমান জেলার দুর্গাপুরের ফরিদপুর এলাকায় করোনা রিপোর্ট সঠিকভাবে জানতে না পারায় এক বছর ৮০ বৃদ্ধার দেহ তার ঘরে টানা ১০ ঘন্টারও অধিক একইভাবে অমানবিকতার সাথে পরেছিলো | দুর্গাপুর পৌরসভার ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডের ফরিদপুর এলাকার এই ঘটনায় উত্তেজিত গ্রামবাসী আর মৃতের পরিবারের লোকজন প্রশাসনের হাতে মৃতদেহ তুলে দিতে একপ্রকার অস্বীকার করে | স্থানীয় সূত্র থেকে জানাগেছে , শুক্রবার সকালে ফরিদপুরে এক বৃদ্ধর মৃত্যু হয় | একইসাথে এই পরিবারের আরও দুইজন সদস্যের করোনার নমুনা পজিটিভ এসেছিলো | তাই স্থানীয়দের দাবী ছিল অবিলম্বে এই বৃদ্ধর লালারসের নমুনা পরীক্ষার রিপোর্টে ঠিক কি আছে তা জানিয়ে প্রশাসনকে মৃতদেহ নিয়ে যেতে হবে নচেৎ তারা কোনোভাবেই মৃতদেহ প্রশাসনের হাতে তুলে দেবেন না | শত প্রচেষ্টার পরেও পুলিশ স্থানীয়দের বোঝাতে পারেনি | এই ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসেন দুর্গাপুরের ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট উদয় নারায়ণ জানা |

-Advertisement-

কিন্তু এই সরকারী আধিকারিকের সাথেও তুমুল বচসা হয় ওই এলাকার স্থানীয়দের সাথে | স্থানীয়দের অভিযোগ কেন করোনার পরীক্ষার রিপোর্ট পেতে এত দেরী হচ্ছে , এই প্রশ্ন তুলে মহকুমা প্রশাসনের আধিকারিক ও পুলিশের সামনে ক্ষোভে উত্তাল হয়ে উঠে এলাকাবাসী | ক্ষোভের মুখে পড়েন স্বাস্থ্য বিভাগের মেয়র পরিষদ রাখি তেওয়ারি | দুর্গাপুরের ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট উদয় নারায়ণ জানা জানিয়েছেন সরকারী নিয়মমাফিক তারা কাজ করছেন | মৃতদেহ তারাই দায়িত্ব নিয়ে সৎকার করবেন পরিবারের দুই একজন সুরক্ষা নিয়ে শ্মশানঘাটে থাকতে পারেন | শুক্রবারের এই ঘটনা আবার একবার প্রমান করিয়ে দিলো করোনা সচেতনতায় প্রশাসন একাধিকবার যতই জনগণকে সচেতন করুক না কেন , দুর্গাপুরের অধিকাংশ সাধারণ মানুষ এখনও সেইরূপ ভাবে সচেনতন হয়নি | একইসাথে এই বিষয়ে প্রশাসনকেও আরও তৎপরতা দেখাতে হবে আগামী দিনগুলোতে স্থানীয় মানুষগুলোর সুরক্ষার্থে |

Share this page:

Leave a Reply

Your email address will not be published.

-Advertisement-