-Advertisement-

দুর্গাপুরের রাস্তা বেহাল , নিশ্চুপ প্রশাসন –

দুর্গাপুর শিরোনাম এই মুহূর্তে

দুর্গাপুর হ্যা ঠিকই ধরেছেন , এক সময়কার শিল্পনগরী দুর্গাপুর | ডক্টর বিধান চন্দ্র রায়ের সৃস্টি এই শিল্পনগরী দুর্গাপুরেই এক সময়ে গড়ে উঠেছিল একটির পর একটি বৃহৎ শিল্প | যার জন্যে এই দুর্গাপুরের নামের আগে শিল্পনগরী শব্দটি সেই সময় থেকেই জুড়ে গিয়েছিলো একপ্রকার পাকাপাকি ভাবে | যার প্রতিচ্ছবি এখনও একইভাবে বহন করে নিয়ে আসছে শহর দুর্গাপুর | বিশ্বের দরবারে এই দুর্গাপুরের নাম শুধু দুর্গাপুর নয় চিহ্নিত হয়েছে শিল্পনগরী দুর্গাপুর রূপে | কিন্তু যত দিন গেছে ততই যেন এই দুর্গাপুর একের পর এক হারিয়েছে তার শিল্পকলা | অর্থাৎ একের পর এক বন্ধ হয়েগেছে শিল্প এই শিল্প নগরী দুর্গাপুরের বুক থেকে | ক্রমশই এই শহর দুর্গাপুর হয়ে পড়েছে শিল্পহীন বিভিন্ন প্রকার কারণের যাতা কলের মধ্যে পেশাই হয়ে | সম্প্রতি দুর্গাপুর আগের ন্যায় অনেকটাই উন্নতি করেছে , কিন্তু সেটা শিল্প ক্ষেত্রে নয় অন্য ধারণের প্রযুক্তিগত ও অত্যাধুনিক বিভিন্ন ক্ষেত্রে | মানুষের জীবন ধারণের মান আগের তুলনায় উন্নত হয়েছে ঠিকই কিন্তু তা সত্ত্বেও যেন সেই আগের দুর্গাপুরের নামের সাথে বর্তমান দুর্গাপুরের নামটা অনেকটাই পরিবর্তিত হয়েগেছে | বর্তমানে দুর্গাপুরের বুকে গড়ে উঠেছে বেশ কয়েকটি সুপার স্পেশালিটি হাসপাতাল , উন্নত চিকিৎসা ব্যবস্থা , বহু বড় বড় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান , বহু বড় বড় বহুজাতিক সংস্থার অফিস , ব্যাঙ্ক , শপিং মল , উন্নত মানের মার্কেট কমপ্লেক্স , রাস্তা – ঘাট থেকে শুরু করে বহু কিছু আধুনিক জীবনধারণের পরিষেবা | কিন্তু কথায় আছে যে শত গুনের মধ্যে একটি খারাপ গুন থাকলেই পুরোটাই একপ্রকার ফিকে হয়ে যায় | আর ঠিক হয়েছেও তাই , সম্প্রতি দুর্গাপুরের রাস্তাঘাট যেভাবে সংস্কার হওয়ার প্রয়োজন ঠিক সেই ভাবে একেবারেই সংস্কার করা হচ্ছে না , এমনটাই দুর্গাপুরের অধিকাংশ অধিবাসীদের অভিযোগ সম্প্রতি উঠে এসেছে জনসমুক্ষে |

-Advertisement-

তাদের মতে দুর্গাপুরের অধিকাংশ রাস্তারই দীর্ঘদিন ধরে বেহাল অবস্থা থাকা সত্ত্বেও প্রশাসন কোনোমতেই সেই সমস্ত রাস্তাগুলিকে সংস্কার করার উদ্যোগ নিচ্ছেনা | যার ফলে সেই সমস্ত রাস্তাগুলিতে প্রতিনিয়তই ঘটে চলেছে একের পর এক বড় বড় দুর্ঘটনা | আর এই দুর্ঘটনার কবলে পড়ে প্রাণ হারাচ্ছে দিনের পর দিন অসংক্ষ সাধারণ সাধারণ মানুষ | সম্প্রতি দুর্গাপুর শহরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ রাস্তাগুলির বেহাল অবস্থা দেখলে একপ্রকার ইতস্তত বোধ করতে হয় দুর্গাপুরবাসীকে খোদ নিজেরই কাছে | একটাই প্রশ্ন সকল দুর্গাপুরবাসীর মনের মধ্যে একাধিকবার জাগরুক হয়ে ওঠে ‘ হায়রে উন্নত দুর্গাপুরের একি অবস্থা ‘ | দুর্গাপুরের প্রাণকেন্দ্র ও একইসাথে একটি গুরুত্বপূর্ণ সংযোগকারী স্থান হলো সিটি সেন্টার | এই সিটি সেন্টারই সংযোগ রক্ষা করে চলেছে দুর্গাপুর শহরকে রাজ্যের অন্যত্র গুরুত্বপূর্ণ জেলা গুলির সাথে দীর্ঘদিন ধরে | তবে এই সিটি সেন্টারের দক্ষিণবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহন সংস্থার বাস স্ট্যান্ডে ঠিক প্রবেশের মুখেই গুরুত্বপূর্ণ রাস্তাটি দীর্ঘদিন ধরে খুবই বেহাল অবস্থায় কোনও রূপ সংস্কারহীন ভাবেই পড়ে রয়েছে খোদ প্রশাসনের চোখের সামনে | ওই রাস্তাটি দীর্ঘদিন সংস্কারহীন ভাবে পরে থাকার ফলে তৈরী হয়েছে বড় বড় গর্ত , যার ফলে এই রাস্তা দিয়ে বাস চলাচল করাটা খুবই দুঃশ্চিন্তার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে বাসযাত্রীদের জন্যে | আর বর্ষার সময় তো কোনও কথাই নেই , এই রাস্তার উপরেই জমে যায় এক হাঁটু পর্যন্ত বর্ষার জল | দুর্গাপুরবাসী দেখেছে এই দুর্গাপুর শহরের রাস্তা সংস্কারের দাবিতে বহুবার রাজনৈতিক বিরোধী দলগুলি এই বেহাল রাস্তা সংস্কারের দাবিতে রাস্তায় নেমে বিভিন্নভাবে বিক্ষোভও প্রদর্শন করেছে প্রসাশনের বিরুদ্ধে | কিন্তু তাতেও কোনও সঠিক সাড়া মেলেনি প্রশাসনের তরফ থেকে দুর্গাপুরের বেহাল এই রাস্তাগুলি পুনঃ সংস্কারের ক্ষেত্রে | তাই দুর্গাপুরের প্রশাসনের কাছে দুর্গাপুর বাসীর কাতর আবেদন যে অনতিবিলম্বে দুর্গাপুর শহরের সমস্ত বেহাল রাস্তাগুলি মেরামত করে সমগ্র দুর্গাপুরবাসীকে এক্ষেত্রে সুরক্ষা প্রদান করা হউক |

Share this page:

Leave a Reply

Your email address will not be published.

-Advertisement-