-Advertisement-

চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগ , বিনা চিকিৎসায় প্রাণ হারালেন বছর উনিশের মহিলা :

দুর্গাপুর

সংবাদ ভাস্কর নিউজ : দুর্গাপুর : পেটে ব্যথা আর বমির উপসর্গ হওয়ায় বিধান নগরের দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালে আসেন বছর ১৯ এর মহিলা গত শুক্রবার । তবে ওই মহিলাকে ভর্তি না করে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ফিরিয়ে দেওয়া হয় , এমনই অভিযোগ ওঠে হাসপাতালের বিরুদ্ধে । রবিবার ওই মহিলার শারীরিক অবস্থা আরও খারাপ হয় ফের তাকে দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় ।

-Advertisement-

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে ফের ভর্তি না করার অভিযোগ ওঠে । তবে এইবার পরিবার-পরিজনরা চেঁচামেচি করায় অবশেষে ওই অসুস্থ মহিলাকে ভর্তি করতে এক প্রকার বাধ্য হয় দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ । ওই মহিলার পরিবারের এও অভিযোগ, ভর্তি করার পর কোন চিকিৎসক অসুস্থ মহিলাকে দেখতে আসেন নি ।

অবশেষে সোমবার ওই অসুস্থ মহিলার পরিবারের কাছে খবর আসে ওই মহিলা সোমবার প্রায় সকাল দশটা নাগাদ ওই হাসপাতালেই প্রাণ হারান । বিনা চিকিৎসায় মারা যাচ্ছেন এমনটাই দাবি পরিবার-পরিজনদের । এর পরই মৃতার পরিবারের লোকজন চরম উত্তেজিত হয়ে চড়াও হয় দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালের সুপার ডঃ ইন্দ্রজিৎ মাঝির কাছে । ইন্দ্রজিৎ বাবুকে ঘিরে ক্ষোভ প্রকাশ করতে থাকে মৃতার পরিবার-পরিজনরা ।

-Advertisement-

দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালের সুপারের কাছে অভিযুক্ত চিকিৎসকের বিরুদ্ধে অবিলম্বে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানায় মৃতার পরিবার। একইসাথে তারা লিখিত অভিযোগও দায়ের করেন হাসপাতালে সুপারের কাছে অভিযুক্ত চিকিৎসকের বিরুদ্ধে । ব্যবস্থা না নিলে মৃতদেহ নিতে অস্বীকার করেন মৃতার পরিবার । জানা গিয়েছে মৃত মহিলার নাম অনুরুপা বাউরী , পশ্চিম বর্ধমান কাঁকসার অন্তর্গত গোপালপুর এলাকার বাসিন্দা তিনি ।পরিবারের তরফ থেকে ওঠা বিনা চিকিৎসায় অভিযোগের কথা দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালের সুপার অস্বীকার করেছেন । অবশ্য হাসপাতাল সুপার মৃতার পরিবারের তরফ থেকে অভিযুক্ত চিকিৎসক এর বিরুদ্ধে যথাযথ তদন্ত সাপেক্ষ সঠিক ব্যবস্থা নেবেন বলে আশ্বাস দেন তিনি । এরপর হসপিটালের সুপারের তরফ থেকে আশ্বাস পেয়ে বিকেল প্রায় ৪:১৫ নাগাদ মৃতদেহ নিয়ে হাসপাতাল ছাড়েন মৃতার পরিবার।

-Advertisement-
Share this page:

Leave a Reply

Your email address will not be published.

-Advertisement-