-Advertisement-

ভুয়ো আবেদন করে টাকা চাওয়ার অভিযোগ উঠছে রূপশ্রী প্রকল্পে –

উত্তর 24 পরগনা পশ্চিমবঙ্গ শিরোনাম এই মুহূর্তে

সংবাদ ভাস্কর নিউজ ডেস্ক : মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্যোগে রূপশ্রী প্রকল্প চালু করার পর থেকে উপকৃত হয়েছে মেয়ের বিয়ে দিতে আর্থিকভাবে অসচ্ছল বহু বাবা-মা । কিন্তু বর্তমান করোনা পরবর্তী পরিস্থিতিতে যখন সবকিছু খুলে দেওয়ার অনুমতি দিয়েছে সরকার বেশিরভাগ পরিবারের মেয়েরা অসৎ উপায়ে নিজেদের বিয়ের খরচ মেটানোর জন্য রূপশ্রী প্রকল্পে ভুয়ো আবেদন করে টাকা হাতানোর চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ । এই সমস্ত ঘটনা বেশিরভাগ ঘটছে উত্তর ২৪ পরগনা জেলায় ।

-Advertisement-

আর এই ভুয়ো আবেদন বাছাই করতে করতে ব্লক স্তরের অফিসারদের নাজেহাল অবস্থা । মমতা ব্যানার্জির সিদ্ধান্ত অনুসারে বছরে দেড় লক্ষ টাকার কম আয় এমন পরিবারে মেয়েদের বিয়ে দেওয়ার জন্য এই রূপশ্রী প্রকল্পের সূচনা ।

সম্প্রতিককালে এরকম ভুয়ো আবেদনের উদাহরণ শুনলে রীতিমতো চমকে যাওয়ার বিষয় । যেমন তিন বাচ্চার মা নতুন করে বিয়ের কার্ড ছাপিয়ে এই রুপশ্রী টাকা হাতানোর চেষ্টা করছে । আবার দেগঙ্গার হাদীপুরঝিকড়ার ১ নং গ্রামে এক যুবতি রূপশ্রী প্রকল্পের জন্য আবেদন জানান । এখানে তাঁর প্রমাণ পরিচয়পত্র হিসেবে ভোটার কার্ড নম্বর ধরে যখন অফিসাররা ভেরিফিকেশন করে দেখেন সেটি একটি জঙ্গল । এরপরে অফিসাররা সেই যুবতীর বাড়ির ঠিকানায় পৌঁছালে , যুবতীর বাবা-মা তাদেরকে মুচলেকা দিতে বাধ্য হয় । বিরক্ত দেগঙ্গার অফিসাররা হুমকি দিয়েছেন থানায় যাবার ।

-Advertisement-

এইরকম ভাবে অসৎ উপায়ে রূপশ্রী প্রকল্পের টাকা হাসিল করার উদাহরণ বারাসাত ২ নং ব্লক , হাড়োয়া , আমডাঙ্গা সহ বিভিন্ন এলাকায় চলছে ।

-Advertisement-

দেগঙ্গার বিডিও সুব্রত মল্লিক বলেন , রূপশ্রী প্রকল্পে প্রচুর ভুয়ো আবেদন জমা পড়ছে । আমাদের কর্মীরা এলাকায় ঘুরে ঘুরে সেই সমস্ত আবেদন এর সত্যতা যাচাই করছে । ভুয়ো আবেদনকারীর বাবা-মাকেও মুচলেকা দিতে হচ্ছে । আমরা মানুষকে নানাভাবে সচেতন করার চেষ্টা করছি ।

Share this page:

Leave a Reply

Your email address will not be published.

-Advertisement-