-Advertisement-

এক মর্মান্তিক ঘটনার সাক্ষী থাকলো জলপাইগুড়ি জেলার ধুপগুড়ির মানুষ

শিলিগুড়ি

সংবাদ ভাস্কর ডিজিটাল ডেস্ক : এক মর্মান্তিক ঘটনার সাক্ষী থাকল জলপাইগুড়ির ধূপগুড়ি। বৃহস্পতিবার ধূপগুড়ির ঠাকুরপাঠ এলাকায়, নিজের যুবতী মেয়েকে পিটিয়ে মারল অভিযোগ উঠেছে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। কুকীর্তির পর প্রাণে বাঁচতে জঙ্গলে গা ঢাকা দেয় অভিযুক্ত। গ্রামবাসীদের সহায়তায় তাকে গ্রেফতার করেছে পুলিস।

-Advertisement-

জানা গিয়েছে, গুরুতর আহত অবস্থায় যুবতীকে ধূপগুড়ি গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে গেলে, চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। মারধরের পর জঙ্গলে লুকিয়ে পড়ে অভিযুক্ত। গ্রামবাসীরা তাকে ধরে ফেলে। পুলিসের হাতে তুলে দেওয়া হয়। পরবর্তীতে ধূপগুড়ি থানার পুলিস অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে। অভিযুক্তের নাম নিরঞ্জন পাল। তার মৃত মেয়ের নাম ললিতা পাল। স্থানীয়রা অভিযোগ করেছেন, রাগের বশে এদিন সন্ধেয় মেয়েকে বাটাম দিয়ে পেটাতে থাকে অভিযুক্ত। ঘটনাস্থলেই ললিতা পালের মুখ দিয়ে রক্ত বের হয়। এরপর উদ্ধার করে তাঁকে ধূপগুড়ি গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে গেলে, কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত বলে ঘোষণা করেন।

ঘটনাস্থলে যান আইসি সুজয় তুঙ্গার নেতৃত্বে ধূপগুড়ি থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী। স্থানীয় সূত্রে খবর, অভিযুক্ত ব্যক্তি মানসিক ভারসাম্যহীন। এর আগেও বউ, ছেলে ও মেয়েদের পিটিয়েছে ওই ব্যক্তি। তবে বর্তমানে সে সুস্থ রয়েছে। কিন্তু হঠাৎ কেন এ রকম ঘটনা ঘটাল, তা সকলেরই অজানা

-Advertisement-
Share this page:

Leave a Reply

Your email address will not be published.

-Advertisement-