-Advertisement-

বাড়ির অদূরে কুয়ো থেকে মিলল একই পরিবারের তিন গৃহবধূ ও দুই শিশুর মৃতদেহ

এক নজরে

সংবাদ ভাস্কর ডিজিটাল ডেস্ক : একই পরিবারের ৩ গৃহবধূ ও ২ শিশুর মৃতদেহ মিলল বাড়ির অদূরে এক কুঁয়ো থেকে। জয়পুরের কাছে ডুডু এলাকার ওই ঘটনায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

-Advertisement-

গত বুধবার থেকে নিখোঁজ ছিল ওই ৫ জন। ওই ৩ মহিলা সম্পর্কে বোন। বিয়ে হয়েছিল একই বাড়িতে। তাদের পরিবারের দাবি, পণের জন্যই খুন করা হয়েছে তাদের। কারণ বিয়ের পর থেকেই পণের দাবিতে তাদের উপরে অত্যাচার করা হতো।

শনিবার ওই ৩ জনের শ্বশুরবাড়ির কাছে ওই কুঁয়ো থেকে মৃতদেহগুলি উদ্ধার করা হয়। ওই ঘটনার পর গ্রেফতার করা হয়েছে ৩ মহিলার স্বামী ও তাদের বাবা-মাকে। পুলিস সূত্রে খবর, মৃত ৩ মহিলার নাম কালী দেবী(২৭), মমতা মিনা(২৩) ও কমলেশ মিনা(২০)। এছাড়াও মৃত দুই শিশু হল কালী দেবীর ৪ বছরের সন্তান হারসিত ও মাত্র ২০ দিনের এক শিশু। মমতা ও কমলেশ সন্তানসম্ভবা ছিলেন।

-Advertisement-

মৃত ৩ মহিলার বাবার অভিযোগ, বিয়ের পর থেকেই পণের জন্য অত্যাচার করা হত ৩ বোনের উপরে। দিন পনের আগেই শ্বশুর বাড়ির মারধরে হাসপাতালে ভর্তি হতে হয় কালী দেবীকে। তার চেখে গুরুতর আঘাত লাগে। কয়েকদিন আগেই তিনি হাসপাতাল থেকে ঘরে ফিরেছিলেন।

-Advertisement-

উল্লেখ্য, নিজেদের পায়ে দাঁড়ানোর আপ্রাণ চেষ্টা করতেন ৩ বোন। কালী দেবী বিএ ফাইনাল ইয়ারে পড়তেন, মমতা রাজ্য পুলিসের পরীক্ষায় পাস করেছিলে। অন্যদিকে, কমলেশ ভর্তি হয়েছিলেন এক কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে।

Share this page:

Leave a Reply

Your email address will not be published.

-Advertisement-