-Advertisement-

ময়নাতদন্তের পর রবীন্দ্রসদনেই গান স্যালুটে শেষ শ্রদ্ধা প্রয়াত গায়ককে।

বিনোদন

প্রিয়াঙ্কা আইচ ভৌমিক , সংবাদ ভাস্কর বিনোদন ডেস্ক : কলকাতা বিমানবন্দরে নয়, প্রয়াত সঙ্গীতশিল্পী কৃষ্ণকুমার কুন্নথ বা কেকে-কে রবীন্দ্র সদনে শেষ শ্রদ্ধা জানাবে রাজ্য সরকার৷ বাঁকুড়া থেকে একথা জানিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷
এবং সেই কথা অনুযাই রবীন্দ্র সদনে গান স্যালুট দিয়ে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করা হল গায়ক কৃষ্ণকুমার কুন্নাথকে। বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সেখানে ফুল দিয়ে গায়ককে শ্রদ্ধা জানান, মমতার পরেই গায়কের কফিনবন্দি দেহে মালা দেন তাঁর স্ত্রী জ্যোতি কৃষ্ণা এবং পুত্র, নকুল কৃষ্ণা কুন্নাথ। ছিলেন পরিবারের আরও দুই সদস্য। শ্রদ্ধাজ্ঞাপনের পরই গান স্যালুট দিয়ে শ্রদ্ধা জানোনে হয় শিল্পীকে।

-Advertisement-


স্ত্রী জ্যোতি টিনএজ সুইটহার্ট থেকে কেকে-র জীবনসঙ্গী। তাঁর সাফল্য, তাঁকে নিয়ে ফ্যানদের উন্মাদনার প্রতি ‘পল’-এর সাক্ষী ছিলেন তিনি।কলকাতায় শো করতে এসে থেমে গেল সেই মুহূর্ত। স্তব্ধ হল সুর। জনপ্রিয় বলিউড গায়কের অকালপ্রয়াণে শোকবিহ্বল আপামর সঙ্গীতপ্রেমীরা।

শোকস্তব্ধ পরিবারও।
সকালেই কলকাতায় আসেন শিল্পীর স্ত্রী এবং মেয়ে ৷ রবীন্দ্রসদনে উপস্থিত ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, মেয়র ফিরহাদ হাকিম, বিধায়ক বাবুল সুপ্রিয়, মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস, বিধায়ক মদন মিত্র এবং কলকাতা ও রাজ্য পুলিশের উচ্চপদস্থ আধিকারিকরা ৷
প্রসঙ্গত, গত সোমবার কে কে কলকাতায় এসেছিলেন দু’টি কলেজ ফেস্টের অনুষ্ঠানে গান গাইতে ৷ প্রথমটি ছিল সোমবার ঠাকুরপুকুর বিবেকানন্দ কলেজের এবং মঙ্গলবার গুরুদাস কলেজের ফেস্ট ৷ দক্ষিণ কলকাতার নজরুল মঞ্চে গতকালের সেই শো’তে পারফর্ম করার পর রাতেই মৃত্যু হয় তাঁর ৷ স্টেজে ওঠার আগে থেকেই অস্বস্তিবোধ করছিলেন ৷ স্টেজের আলোয় কষ্ট হচ্ছিল তাঁর ৷ গানের মাঝে বারে বারে বিরতি নিচ্ছিলেন ৷ কিন্তু, তা সত্ত্বেও মঞ্চ ছাড়েননি কৃষ্ণকুমার কুন্নাথ ৷ শো শেষ করে হোটেলে ফিরে আসেন ৷ সেখানে ফের অস্বস্তিবোধ করেন ৷ দ্রুত দক্ষিণ কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন ৷

-Advertisement-
Share this page:

Leave a Reply

Your email address will not be published.

-Advertisement-