-Advertisement-

মোবাইল ফোন না দেওয়ায় আত্মঘাতী কিশোর

এক নজরে

সংবাদ ভাস্কর ডিজিটাল ডেস্ক : বর্তমান সমাজে মোবাইলে অনলাইন গেম যে ঠিক কতটা সর্বনাশা হয়ে উঠেছে তার জলজ্যান্ত প্রমাণ এই আত্মহত্যার ঘটনা গুলি। প্রায়শই এখন দেখা যাচ্ছে বাচ্চারা মোবাইল ফোনের প্রতি অত্যন্ত আসক্ত, যার কারণে কখনো বা আত্মহত্যা করছেন আবার কেউ বা নিজের পরিবারের প্রিয়জনদের খুন করতে দ্বিতীয়বার ভাবছেন না।

-Advertisement-

কিছুদিন আগেই উত্তরপ্রদেশ থেকে একটি চাঞ্চল্যকর ঘটনা সামনে আসে, যেখানে পাবজি খেলতে মা বারণ করায় ১৬ বছরের ছেলে তার মাকে গুলি করে খুন করেন। আরেকটি ঘটনা হল, বড় ভাই তার ছোট ভাইয়ের কাছ থেকে মোবাইল না পাওয়ায় , ছোট ভাইকে খুন করে কুয়োর মধ্যে ফেলে দেন।

আবারো মুম্বাই থেকে এল এই ধরনের আরেকটি হৃদয়বিদারক ঘটনার কথা। যেখানে ১৬ বছরের এক ছেলেকে তার মা ফোন দেননি। আর সেই অভিমানে রেললাইনে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেছে ওই ছেলেটি।মোবাইল গেম ছিনিয়ে নিল ঘরের সুখ!ঘটনাটি ঘটেছে বৃহস্পতিবার মুম্বাইতে । ১৬ বছর বয়সী ওই ছেলেটি মোবাইল ফোনে গেমের প্রতি আসক্ত ছিলেন।

-Advertisement-

তার মা গেম খেলতে বারণ করায় তার রাগ হয়। পুলিশের তথ্য অনুযায়ী, ছেলেটি একটি সুইসাইড নোট লিখে রেখে ট্রেনের সামনে ঝাঁপ দিয়েছেন। দিন্দোশি পুলিশের মতে, ছেলেটির মা বুধবার সন্ধ্যায় তার ফোন নিয়েছিলেন কারণ তিনি তাকে পড়াশোনা করতে বলেছিলেন, কিন্তু সে তার মোবাইলে একটি গেম খেলছিলেন এবং মায়ের কথায় কর্ণপাত করেননি।

-Advertisement-

তার মা ফোনটি নিয়ে নিলে, একটি সুইসাইড নোট লিখে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যান।এরপর তার মা বাড়িতে ফিরে চিঠিটি পড়েন, যেখানে লেখা ছিল যে তিনি মারা যাচ্ছেন এবং আর কখনো ফিরে আসবেন না। এরপরই পরিবারের লোকজন দিন্দোশি থানায় খবর দিলে পুলিশ তাকে খুঁজতে থাকে। খোঁজ নিয়ে পুলিশ খবর পায় যে মালাদ এবং কান্দিভালি স্টেশনের মধ্যে ট্রেনের সামনে কেউ ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন।

ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর পরে, তদন্তে জানা যায় যে সেই ছেলেটিই আত্মহত্যা করেছেন যিনি বাড়িতে তার মায়ের উদ্দ্যেশ্যে সুইসাইড নোট লিখেছিলেন।

Share this page:

Leave a Reply

Your email address will not be published.

-Advertisement-