-Advertisement-

সুশান্তের মৃত্যু রহস্যের ধোঁয়াশার মধ্যেই কেটে গেলো দুটি বছর

বিনোদন

প্রিয়াঙ্কা আইচ ভৌমিক, সংবাদ ভাস্কর বিনোদন ডেস্ক : সুশান্তের মৃত্যু রহস্যের ধোঁয়াশার মধ্যেই কেটে গেলো দুটি বছর। কি বলছেন তাঁর কাছের মানুষরা, কিই বা বলছে সিবিআই? ‘প্রত্যেকদিন তোমায় মিস করি।‘ সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু বার্ষিকীতে এমনই লিখলেন রিয়া চক্রবর্তী।

-Advertisement-

নিজের সোশ্যাল হ্যান্ডেলে সুশান্তের সঙ্গে কাটানো ভালবাসার ছবি শেয়ার করেন রিয়া। যেখানে রিয়া এবং সুশান্তের বিভিন্ন মুহূর্তরা উঠে আসে। সুশান্তের সঙ্গে ভালবাসার মুহূর্তের ছবি শেয়ার করেই প্রয়াত অভিনেতাকে স্মরণ করলেন রিয়া চক্রবর্তী। অন্যদিকে, সুশান্তের মৃত্যুর দু’বছরে আবেগঘন পোস্ট করেছেন তাঁর দিদি শ্বেতা সিং কীর্তি৷ হাস্যময় এক শিশুর সঙ্গে সুশান্তের একটি ছবি পোস্ট করে শ্বেতা লিখেছেন, ‘নশ্বর দেহ ছেড়ে গিয়েছ ২ বছর হল ভাই, কিন্তু তুমি অবিনশ্বর হয়ে গিয়েছ তোমার চিন্তাধারার জন্য। দয়া, মায়া ও প্রেম এই ছিলে তুমি।

সকলের জন্য তুমি অনেক কিছু করতে চেয়েছিলে। তোমার শেষ না করা কাজ আমরা এগিয়ে নিয়ে যাব। ভাই, তুমি এই বিশ্বকে উন্নত করেছ, তোমার অবর্তমানে সেটাই করে যাব।‘ শ্বেতা আবেদন করেছেন, ‘চলুন, আজ আলো জ্বালাই ও কারও মুখে হাসি ফুটিয়ে তুলি’। ২০২০ সালের ১৪ই জুন, মুম্বাইয়ের মুম্বইয়ের ব্যান্দ্রায় অ্যাপার্টমেন্টের চার দেওয়ালের মধ্যে উদ্ধার হয়েছিল সুশান্ত সিং রাজপুত এর দেহ।

-Advertisement-

বলিউড অভিনেতার মৃত্যু কেন হল, তা নিয়ে ধোঁয়াশা এখনও অব্যাহত।সুশান্তের মৃত্যুর পর মাদক মামলায় গ্রেফতার করা হয় রিয়া চক্রবর্তীকে। রিয়ার সঙ্গে গ্রেফতার করা হয় তাঁর ভাই শৌভিক চক্রবর্তীকেও। যদিও রিয়া এবং শৌভিক বর্তমানে জামিনে মুক্ত। সুশান্তের মৃত্যুর পর রিয়া চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে যে ধরনের অভিযোগ উঠতে শুরু করে, তার কোনও তথ্য প্রমাণ এখনও মেলেনি। তাঁর মৃত্যুর দু বছর পরও সেন্ট্রাল ব্যুরো অফ ইনভেস্টিগেশন (সিবিআই) এখনও নিশ্চিত করতে পারেনি অভিনেতা আত্মহত্যা করেছেন নাকি তাঁর মৃত্যুর ষড়যন্ত্র ছিল।

-Advertisement-

২০২০ সালের আগস্টে এজেন্সি তদন্তের দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে ২২ মাসে একাধিক সাক্ষীকে একাধিকবার জেরা করেছে, অভিনেতার সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টগুলির বিশদ বিশ্লেষণ এবং মৃত্যুর আগে তার মানসিক অবস্থার মূল্যায়ন করেছে। ষড়যন্ত্রের দৃষ্টিকোণ থেকে মৃত্যুকে দেখার জন্য মামলাটি সিবিআই-এর কাছে স্থানান্তর করা হয়েছিল। কিন্তু তা কতদূর? নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক কর্মকর্তা বলেছেন, তদন্তকারী দল সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে সমস্ত প্রমাণ সাবধানতার সঙ্গে দেখতে চায় বলেই এত দীর্ঘ সময় পরেও তদন্ত শেষ হয়নি। যদিও অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অফ মেডিকেল সায়েন্সের একটি মেডিকেল বোর্ড ২০২০র সেপ্টেম্বরে এই সিদ্ধান্তে পৌঁছেছিল যে অভিনেতার মৃত্যু আত্মহত্যা।

সুশান্তের মৃত্যু শুধু বলি ইন্ডাস্ট্রিকেই নয়, সারা দেশকে রীতিমতো নাড়িয়ে দিয়েছিল। অভিনেতা তার দুর্দান্ত অভিনয় এবং প্রাণবন্ততা দিয়ে প্রতিটি অনুরাগীর হৃদয় জয় করেছিলেন। তাঁর অভিনীত উল্লেখযোগ্য ছবিগুলি কাই পো চে, ডিটেকটিভ ব্যোমকেশ বক্সী, এম এস ধোনি, পিকে, কেদারনাথ প্রমুখ৷ খুবই কম সময়ের মধ্যেই শেষ হয়ে যায় তাঁর কাজ, সকলকে চির বিদায় জানান অভিনেতা৷ তবে সুশান্তের মৃত্যুদিনকে তাঁর ফ্যানেরা ঘোষণা করেছে এন্টি নেপোটিজম ডে হিসাবে। কারণ অধিকাংশের বিশ্বাস, বলিউডের পরিচিত বৃত্তের বাইরে থেকে এসে মেইনস্ট্রিম হিরো হওয়াটা অনেকেই ভালো চোখে দেখতে পারেন নি।

সুশান্তের মৃত্যু রহস্যের ধোঁয়াশার মধ্যেই কেটে গেলো দুটি বছর। কি বলছেন তাঁর কাছের মানুষরা, কিই বা বলছে সিবিআই?
‘প্রত্যেকদিন তোমায় মিস করি।‘ সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু বার্ষিকীতে এমনই লিখলেন রিয়া চক্রবর্তী। নিজের সোশ্যাল হ্যান্ডেলে সুশান্তের সঙ্গে কাটানো ভালবাসার ছবি শেয়ার করেন রিয়া। যেখানে রিয়া এবং সুশান্তের বিভিন্ন মুহূর্তরা উঠে আসে। সুশান্তের সঙ্গে ভালবাসার মুহূর্তের ছবি শেয়ার করেই প্রয়াত অভিনেতাকে স্মরণ করলেন রিয়া চক্রবর্তী।


অন্যদিকে, সুশান্তের মৃত্যুর দু’বছরে আবেগঘন পোস্ট করেছেন তাঁর দিদি শ্বেতা সিং কীর্তি৷ হাস্যময় এক শিশুর সঙ্গে সুশান্তের একটি ছবি পোস্ট করে শ্বেতা লিখেছেন, ‘নশ্বর দেহ ছেড়ে গিয়েছ ২ বছর হল ভাই, কিন্তু তুমি অবিনশ্বর হয়ে গিয়েছ তোমার চিন্তাধারার জন্য। দয়া, মায়া ও প্রেম এই ছিলে তুমি। সকলের জন্য তুমি অনেক কিছু করতে চেয়েছিলে। তোমার শেষ না করা কাজ আমরা এগিয়ে নিয়ে যাব। ভাই, তুমি এই বিশ্বকে উন্নত করেছ, তোমার অবর্তমানে সেটাই করে যাব।‘ শ্বেতা আবেদন করেছেন, ‘চলুন, আজ আলো জ্বালাই ও কারও মুখে হাসি ফুটিয়ে তুলি’।


২০২০ সালের ১৪ই জুন, মুম্বাইয়ের মুম্বইয়ের ব্যান্দ্রায় অ্যাপার্টমেন্টের চার দেওয়ালের মধ্যে উদ্ধার হয়েছিল সুশান্ত সিং রাজপুত এর দেহ। বলিউড অভিনেতার মৃত্যু কেন হল, তা নিয়ে ধোঁয়াশা এখনও অব্যাহত।সুশান্তের মৃত্যুর পর মাদক মামলায় গ্রেফতার করা হয় রিয়া চক্রবর্তীকে। রিয়ার সঙ্গে গ্রেফতার করা হয় তাঁর ভাই শৌভিক চক্রবর্তীকেও। যদিও রিয়া এবং শৌভিক বর্তমানে জামিনে মুক্ত। সুশান্তের মৃত্যুর পর রিয়া চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে যে ধরনের অভিযোগ উঠতে শুরু করে, তার কোনও তথ্য প্রমাণ এখনও মেলেনি। তাঁর মৃত্যুর দু বছর পরও সেন্ট্রাল ব্যুরো অফ ইনভেস্টিগেশন (সিবিআই) এখনও নিশ্চিত করতে পারেনি অভিনেতা আত্মহত্যা করেছেন নাকি তাঁর মৃত্যুর ষড়যন্ত্র ছিল।


২০২০ সালের আগস্টে এজেন্সি তদন্তের দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে ২২ মাসে একাধিক সাক্ষীকে একাধিকবার জেরা করেছে, অভিনেতার সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টগুলির বিশদ বিশ্লেষণ এবং মৃত্যুর আগে তার মানসিক অবস্থার মূল্যায়ন করেছে। ষড়যন্ত্রের দৃষ্টিকোণ থেকে মৃত্যুকে দেখার জন্য মামলাটি সিবিআই-এর কাছে স্থানান্তর করা হয়েছিল। কিন্তু তা কতদূর? নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক কর্মকর্তা বলেছেন, তদন্তকারী দল সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে সমস্ত প্রমাণ সাবধানতার সঙ্গে দেখতে চায় বলেই এত দীর্ঘ সময় পরেও তদন্ত শেষ হয়নি। যদিও অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অফ মেডিকেল সায়েন্সের একটি মেডিকেল বোর্ড ২০২০র সেপ্টেম্বরে এই সিদ্ধান্তে পৌঁছেছিল যে অভিনেতার মৃত্যু আত্মহত্যা।


সুশান্তের মৃত্যু শুধু বলি ইন্ডাস্ট্রিকেই নয়, সারা দেশকে রীতিমতো নাড়িয়ে দিয়েছিল। অভিনেতা তার দুর্দান্ত অভিনয় এবং প্রাণবন্ততা দিয়ে প্রতিটি অনুরাগীর হৃদয় জয় করেছিলেন।
তাঁর অভিনীত উল্লেখযোগ্য ছবিগুলি কাই পো চে, ডিটেকটিভ ব্যোমকেশ বক্সী, এম এস ধোনি, পিকে, কেদারনাথ প্রমুখ৷

খুবই কম সময়ের মধ্যেই শেষ হয়ে যায় তাঁর কাজ, সকলকে চির বিদায় জানান অভিনেতা৷ তবে সুশান্তের মৃত্যুদিনকে তাঁর ফ্যানেরা ঘোষণা করেছে এন্টি নেপোটিজম ডে হিসাবে। কারণ অধিকাংশের বিশ্বাস, বলিউডের পরিচিত বৃত্তের বাইরে থেকে এসে মেইনস্ট্রিম হিরো হওয়াটা অনেকেই ভালো চোখে দেখতে পারেন নি।

Share this page:

Leave a Reply

Your email address will not be published.

-Advertisement-