-Advertisement-

হাসির জগতে আজ মনখারাপের ছায়া, প্রয়াত কমেডিয়ান রাজু শ্রীবাস্তব।

টুকরো খবর

প্রিয়াঙ্কা আইচ ভৌমিক , সংবাদ ভাস্কর বিনোদন ডেস্ক : বছর মানুষের মুখে হাসি ফুটিয়ে আজ না ফেরার দেশে পাড়ি দিলেন বিখ্যাত কমেডিয়ান রাজু শ্রীবাস্তব।

-Advertisement-

১০ অগস্ট বুকে ব্যথা নিয়ে হাসপাতালে ছুটেছিলেন কমেডিয়ান রাজু শ্রীবাস্তব। তবে থেকেই ভক্তদের প্রার্থনা ছিল সঙ্গে। প্রতিটা মুহূর্তে তাঁর শারীরিক অবস্থার খবর নিয়েছেন সকলেই। কিছুদিন আগেই সকলের মন ভাল করে খবর মেলে তিনি চিকিৎসায় সাড়া দিচ্ছেন। সুস্থ হয়ে উঠছেন। ওই দিন জিম করতে করতে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন রাজু। হাসপাতালে ভর্তি করার পর তাঁকে স্থানান্তরিত করতে হয়েছিল ভেন্টিলেশন সাপোর্টে। সূত্রের খবর, শরীরচর্চা করতে করতে হঠাৎ বুকে ব্যথা অনুভব করেন তিনি। তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে ভর্তি করেন তাঁর জিমের প্রশিক্ষকই। চিকিৎসকেরা জানিয়েছিলেন, হার্ট অ্যাটাক হয়েছে তাঁর। এরপর থেকে অভিনেতাকে সুস্থ করে তোলার জন্য বিভিন্ন পদ্ধতি অবলম্বন করেছিলেন চিকিৎসকেরা। করা হয়েছিল অ্যাঞ্জিওপ্লাস্টিও। কিন্তু শেষ রক্ষা হল না। সব চেষ্টা ব্যর্থ করে ২১ সেপ্টেম্বর প্রয়াত হন  রাজু শ্রীবাস্তব। বয়স হয়েছিল ৫৮ বছর। দিল্লির এইমসে মৃত্যু হয় তাঁর। তাঁর মৃত্যুতে বলিউড জুড়ে নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

১৯৬৩ সালে কানপুরের একটি মধ্যবিত্ত পরিবারে জন্ম রাজুর। তাঁর বাবা রমেশ চন্দ্র শ্রীবাস্তব ছিলেন একজন কবি। তাঁকে বলাই কাকা নামে চিনতেন সাধারণ মানুষ। ছোটবেলা থেকেই রাজুর মধ্যে ছিল শিল্পীসত্তা। মানুষের চালচলন দুর্দান্ত নকল করতে পারতেন তিনি। ছোটবেলা থেকেই তিনি চেয়েছিলেন মানুষকে হাসাতে, কমেডিয়ান হতে। ম্যায়নে পেয়ার কিয়া (Maine Peyaar Kiya), বাজিগর (Baazigarh), বোম্বে টু গোয়া (Bombay to Goa) ছবিতে ছোট ছোট চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন তিনি। আমদানি আঠান্নি খরচা রুপাইয়া (Amdani Athanni Kharcha Rupaiya) ছবিতে তিনি একজন হাস্যকৌতুক অভিনেতা হিসেবে অভিনয় করেছিলেন। আর শুধু ছবি নয়, কমেডি নাইটস উইথ কপিল (Comedy Nights With Kapil), মজাক মজাক মে (Mazak Mazak Me), লাফ্টার চ্যালেঞ্জ (Laughter Challenge) ইত্যাদি শো-এর অবিচ্ছেদ্য অংশ হয়ে উঠেছিলেন রাজু। 

-Advertisement-

অভিনয়ের পাশাপাশি রাজনীতির আঙিনাতেও পা রেখেছিলেন রাজু। ২০১৪ লোকসভার ভোটে কানপুর থেকে সমাজবাদী পার্টির প্রতিনিধিত্ব করেছিলেন রাজু। সেই বছরই দল বদলে ভারতীয় জনতা পার্টিতে যোগ দিয়েছিলেন রাজু। শুক্রবারই রাজুর খবর নিতে তাঁর স্ত্রীকে ফোন করেন খোদ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। শুধু মোদীই নন কৌতুকশিল্পী কেমন আছে তা জানতে ফোন করেন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং ও উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথও। অনুরাগীরাও একমনে করছিলেন প্রার্থনা। তবে সে সব প্রার্থনাকে বিফল করে হার মানলেন রাজু। চলে গেলেন এই হাসির সম্রাট।

-Advertisement-
Share this page:

Leave a Reply

Your email address will not be published.

-Advertisement-