পশ্চিমবঙ্গশিরোনাম এই মুহূর্তে
Trending

হারিয়ে যাওয়া সংস্কৃতিকে ফিরিয়ে আনতে পিঠে-পুলির উৎসব বসিরহাটে –

সংবাদ ভাস্কর নিউজ ডেস্ক : জুলফিকার মোল্যা, বসিরহাটঃ এই শীতে পীঠে সমাহার না হলে কি হয়! নাড়ুর মালাই, ঝাল পিঠে, মুগডালের পিঠে, দুধ মালাই,রস বড়া,তেলের পিঠে আরও কত কি! পিঠে বলে কথা, শুনলেই জিভে জল এসে যায়। মুখে দিলে তো কথাই নেই। মুহুর্তের মধ্যে চেটে পুটে সারা। শীতের দিনে এমন সুসাধু খাবার যখন প্রায় উঠে যেতে বসেছে সেই সময়ে বুধবার এই উৎসব একটা আলাদা তাৎপর্য বহন করে। হারিয়ে যাওয়া সংস্কৃতিকে ফিরিয়ে আনতে এক দিনের পিঠে-পুলির উৎসবের আযোজন করা হল বসিরহাটের সাঁইপালা মুনসিবাগান এলাকায় হঠাৎ সংঘের মাঠে।

উদ্যক্তা বসিরহাট আরবান সুসঙ্গত শিশু বিকাশ সেবা প্রকল্পের পিঠে পুলি উৎসবে নানা ধরনের পিঠে খেয়ে উদ্বোধন করলেন বসিরহাট দক্ষিনের বিধায়ক দীপেন্দু বিশ্বাস। উপস্থিত ছিলেন প্রকল্প আধিকারিক শুভঙ্কর বনিক, পুরপ্রশাসক তপন সরকার,মুখ্য সেবিকা তাপসি সরকার সহ প্রকল্পের সহায়িকা ও কর্মীরা।

এ দিন দুপুরে মুনসিবাগান এলাকায় হটাৎ সংঘের মাঠে ২১ নম্বর কেন্দ্রে গিয়ে দেখা যায় বেলুন,রঙ্গিন কাগজ এবং ফুল দিয়ে প্রকল্পের সাথে জড়িত মহিলারা সুন্দর করে সাজিয়েছেন উৎসব প্রাঙ্গন।

সেখানে ধরে ধরে বিভিন্ন ধরনের পিঠে শোভা পাচ্ছে। হৃদয় হরণ পিঠে, গোকুল পিঠে, নাড়ুর মালাই, ঝাল পিঠে, মুগডালের পিঠে, দুধ মালাই,রস বড়া,তেলের পিঠে, বরফি মালাই, গাজর পিঠে,নারকেলের পিঠে,পাটিসাপটা,খির পিঠে,দুধ পিঠে, ভাজা পুলি,মালাই পিঠে,রসবড়া,সাদা পুলি,সুজির পুলি,গোলাপ পিঠে,রোজ ফ্লাওয়ার, ঘাস ফুল পিঠে,ডিমের হফবয়েল পিঠে, ফুচকা পিঠে,ছানা ও গাজড়ের পিছে, কাস্তেপোড়া রসের পিঠে সহ ৪২ রকম পিঠে তৈরি করা হয়েছে।

এতো রকম পিঠে দেখে চোখ ছানা বড়া উপস্থিত অধিকাংশের। শুভঙ্কর বনিক বলেন,‘‘ আমাদের ৭৫টি প্রকল্পের শতাধিক মহিলারা দিন ও রাত পরিশ্রম করে গত ৫ বছর ধরে এমন ভাবে পিঠে-পুলি উৎসবের আযোজন করে আসছেন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button